আর্কাইভ

Archive for the ‘উবুন্টু টিপস’ Category

উবুন্টুতে বাংলা লেখার বিভিন্ন পদ্ধতি

উবুন্টুতে বাংলা লেখার কীবোর্ড লেআউট ইনস্টলের সময়ই দেয়া থাকে। সাধারণ পদ্ধতিতে লেআট যুক্ত করা ছাড়াও সম্প্রতি IBus নামে কীবোর্ড লেআউট যুক্ত করার নতুন একটি পদ্ধতি যুক্ত করা হয়েছে। বাংলা কীবোর্ড লেআউট যুক্ত করার পদ্ধতি এবং লেআউট পরিবর্তন করার জন্য সর্টকাট কী চালু করার পদ্ধতি নিচে দেখানো হল।

সাধারণ পদ্ধতি

লেআউট পরিবর্তনের সর্টকাট তৈরী

IBus ইনপুট পদ্ধতি ব্যবহার

সাধারণ পদ্ধতি

উবুন্টুতে বাংলায় লিখতে চাইলে প্রথমে বাংলা কী-বোর্ড অ্যাড করে নিতে হবে।প্যানেল থেকে System >> Preferences >> Keyboard এ ক্লিক করুন। যে Keyboard Preferences উইন্ডো আসবে তার Layouts ট্যাব-এ ক্লিক করলে নিচের উইন্ডোটি দেখা যাবে।

Add বাটনে ক্লিক করলে যে উইন্ডোটা দেখা যাবে সেখান থেকে Country হিসাবে Bangladesh সিলেক্ট করলে Variants এ Bangladesh লেখা দেখাবে, অর্থাৎ তখন বাংলাদেশের জাতীয় কীবোর্ড লেয়াউট সিলেক্ট হবে।এখানে Probhat নামে আরও একটি কী-বোর্ড লেয়াউট আছে যার মাধ্যমে ও বাংলা লেখা যাবে। By Language ট্যাবটি ব্যবহার করেও বাংলা ভাষার জন্য কীবোর্ড লেআউট নির্ধারণ করা যাবে।

লেআউট পরিবর্তনের সর্টকাট তৈরী

লেখার সময় কী-বোর্ড পরিবর্তন করার জন্য সর্টকাট কী ব্যাবহার করতে পারেন। Layouts Option থেকে Key(s) to change layout এ ক্লিক করলে অনেকগুলা সর্টকাট কী দেখা যাবে, এখান থেকে যে কোনটাতে মার্ক করে দিলে পরবর্তীতে সেই কী ব্যবহার করে লেআউট পরিবর্তন করা যাবে।

কাজের সুবিধার জন্য প্যানেলে কী-বোর্ড ইন্ডিকেটর যোগ করে নিতে পারেন।প্যানেলের খালি যায়গায় মাউসের ডান বাটন ক্লিক করে Add to Panel… ওপেন করুন।

এখানে খুজলে Keyboard Indicator পাবেন, Add করুন। এবার প্যানেলে USA লেখা দেখতে পাবেন, এর অর্থ এখন ইংরেজি কী-বোর্ড চালু কয়েছে। যখন Ban থাকবে তখন বাংলা লেখা যাবে। আইকনটার উপর ক্লিক করে বা সর্টকাট কর ব্যাবহার করে কী-বোর্ড লেয়াউট পরিবর্তন কারা যাবে।যখন যে কী-বোর্ড চালু থাকবে তখন সেটা দেখা যাবে।

System >> administration >> Language Support ওপেন করে বাংলা সিলেক্ট করলে কিছু প্যাকেজ ডাউনলোড হবে তখন বাংলা লেখা গুলা আরও ভালোভালে দেখা যাবে।

IBus ইনপুট পদ্ধতি ব্যবহার

উবুন্টু ৯.১০ সংস্করণ থেকে লেখালেখির ডিফল্ট ইনপুট পদ্ধতির সাথে Ibus নামে নতুন একটি ইনপুট পদ্ধতি যুক্ত করা হয়েছে। এই পদ্ধতিতে ইউনিজয় বাংলা কীবোর্ড লেআউট ব্যবহার করে বাংলা লেখা যায়। ৯.১০ এর আগের সংস্করণগুলিতে ইউনিজয় লেআউটে বাংলা লেখার জন্য Scim নামের একটি সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হত।  এই সংস্করণ থেকে বাংলা লেখার জন্য এই লেআউটটি শুধুমাত্র চালু করে নিতে হয়। ইউনিজয় লেআউটের সুবিধা হল এটি প্রায় “বিজয়” লেআউটের মত। ফলে বিজয় কীবোর্ড ব্যবহারে অভ্যস্তরা এটি ব্যবহার করতে পারেন।
পদ্ধতিটি হল :
১. System >> Preferences >> IBus Preferences নির্বাচন করতে হবে।
২. IBus Preferences চালু হওয়ার সময় উপরের প্যানেলে নতুন একটি কীবোর্ডের আইকন দেখা যাবে । যতক্ষন IBus চালু থাকবে ততক্ষন এটি দেখা যাবে।
৩. নতুন খোলা উইন্ডো থেকে Input Method ট্যাবে (দ্বিতীয় ট্যাব) যেতে হবে ।
৪. ইউনিজয় লেআউট নির্বাচন করার জন্য Select an input method লেখা ড্রপ ডাউন মেনু থেকে Bengali >> unijoy নির্বাচন করতে হবে।
৫. এবার Add বাটনটি চাপলে লেআউটটি যুক্ত হয়ে যাবে। তালিকা থেকে কোন লেআউট বাদ দিতে চাইলে Remove নির্বাচন করতে হবে।

৬. উপরের কীবোর্ডের আইকনটিতে মাউসের ডান বাটন চাপলে একটি মেনু দেখা যাবে সেখান থেকে Restart নির্বাচন করতে হবে।
৭. এরপর ইউনিজয় লেআউট ব্যবহার করে কোথাও বাংলা লেখার জন্য কীবোর্ড থেকে Ctrl + Space বাটন একসাথে চাপতে হবে।

প্রভাত কী-বোর্ড লে-আউট

Advertisements

উইন্ডোজ এবং লিনাক্স থেকে উবুন্টু আইএসও ইমেজ (.iso) সিডিতে বার্ণ করা

উবুন্টু ওয়েব সাইট থেকে বিনামূল্যে উবুন্টু সংগ্রহ করা যায়। মূল সাইট www.ubuntu.com অথবা http://www.ubuntu.com/getubuntu/download পাতা থেকে ডাউনলোড করার অপশন পাওয়া যাবে। Download Location  এর স্থানে আপনি যে দেশ থেকে ডাউনলোড করছেন সেই দেশের নাম নির্বাচন করতে হবে। তালিকায় সেই দেশের নাম না থাকলে সেই দেশের নিকটবর্তী দেশের নাম ব্যবহার করতে হবে। যেমন Download Location এর তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই । সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ থেকে ডাউনলোড করার সময় আপনার লোকেশন হিসাবে India, China এর মত কাছাকাছি কোন দেশের নাম নির্বাচন করতে হবে। তবে সরাসরি ডাউনলোড করার থেকে টরেন্ট ব্যবহার করে ডাউনলোড করা হলে সহজেই খুব দ্রুত ডাউনলোড হয়ে যায়।

উবুন্টু সিডি ইমেজ ফাইল হিসাবে ডাউনলোড করতে হয়। এই ইমেজ ফাইলগুলি ISO ফরম্যাটে থাকে। অন্যান্য ডাটা ফাইলের মত ISO ইমেজ সরাসরি কপি পেস্ট করে সিডিটে বার্ণ করা যায় না। নির্দিষ্ট পদ্ধতি অনুসরণ করে ISO ফাইলটি সিডিতে এক্সট্রাক্ট করতে হয়। অন্য কোন পদ্ধতিতে সিডি বার্ণ করা হলে সেই সিডি থেকে উবুন্টু ইনস্টল করা যাবে না। সিডি থেকে উবুন্টু ইনস্টল করতে হলে ডাউনলোড করা ISO ফাইলটি সঠিক পদ্ধতিতে সিডিতে বার্ণ করতে হবে। প্রয়োজনে বার্ণ করার আগে আইএসও ফাইলটি পরীক্ষা করে দেখে নিতে পারেন।  সিডি বার্ণ করার কাজটি করার জন্য যা প্রয়োজন হবে

* একটি সচল সিডি/ ডিভিডি বার্নার

* একটি ৮০ মিনিট (৭০০ মেগাবাইট) ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন সিডি

বাহনযোগ্য তথ্য সংরক্ষনের মাধ্যম সমূহের মধ্যে সিডি সবথেকে সহজলভ্য এবং সাশ্রয়ী। এছাড়া এই ISO ফাইলটি ডিভিডিতে বার্ণ করা যাবে তবে ডিভিডিতে অনেক দ্রুত গতিতে বার্ণ করা হয় যা প্রায় সময়ই ঠিকমত কাজ করে না। এছাড়া ডিভিডি বেশ ব্যয়বহুল একটি মাধ্যম।

উইন্ডোজ 95 / 98 / ME / 2000 / XP / Server 2003 / Vista এর জন্য ব্যবহার করুন : Infra Recorder

# http://infrarecorder.sourceforge.net/ সাইট থেকে Infra Recorder নামের ফ্রী এবং মুক্ত সিডি বার্ণ করার সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে হবে ।

# একটি খালি সিডি আপনার সিডি বা ডিভিডি বার্ণারে প্রবেশ করান এবং Do nothing অথবা Cancel নির্বাচন করুন যদি সয়ংক্রিয়ভাবে কোন উইন্ডো ওপেন হয়।

# Infra Recorder সফটওয়্যারটি চালু করুন এবং মূল উইন্ডো থেকে ‘Write Image’ বাটনটি চাপুন।
# বিকল্পভাবে এই কাজটি করা যাবে ‘Actions’ মেনু থেকে ‘Burn image’ নির্বাচন করে ।
# যে ফাইল ব্রাউজারটি ওপেন হবে সেখান থেকে আপনার ডাউনলোড কর উবুন্টু সিডি ইমেজটি নির্বাচন করুন এবং ‘Open’ বাটনটি চাপুন।
# এরপর ‘OK’ চাপুন।

উইন্ডোজ XP / Server 2003 / Vista: ISO Recorder

# অপারেটিং সিস্টেমের উপযোগী নির্দিষ্ট সংস্করণের [[http://isorecorder.alexfeinman.com/isorecorder.htm]] সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন।
# আগে বার্ণ করা হয়নি এমন একটি খালি সিডি আপনার সিডি/ডিভিডি বার্ণারে প্রবেশ করান। (”’টীকা”’: ‘কেবলমাত্র উইন্ডোজ ভিস্তাতে এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে ডিভিডি বার্ণ কর সম্ভব।’)
# Image File এর পাশের খালি জায়গায় ক্লিক করে ফাইল ব্রাউজার ওপেন করুন এবং সেখান থেকে আপনার উবুন্টু ISO ফাইলটি নির্বাচন করুন এবং “Next” চাপুন।

Windows 7 থেকে বার্ণ করা

# ডাউনলোড করা উবুন্টু ISO ইমেজ ফাইলটির উপর মাউসের ডান বাটন ক্লিক করুন এবং “Burn disc image” অপশনটি নির্বাচন করুন।
# আপনার সিডি/ডিভিডি বার্ণার নির্বাচন করুন এবং  “Burn” বাটন চাপুন।

উবুন্টু থেকে বার্ণ করা

উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম থেকে বার্ণ করার পদ্ধতিটি বেশ সহজ। আইএসও ফাইলটিতে মাউসের ডান বাটন ক্লিক করলে write to disk নামে একটি অপশন দেখা যাবে। সেটি ব্যবহার করে উবুন্টু আইএসও বার্ণ করা যাবে।

উবুন্টু ১০.০৪ (ল্যুসিড) এর থীম ও আইকন ব্যবহার করুন ৯.১০ (কারমিক) ও ৯.০৪ (জন্টি) তে

এখনো যারা উবুন্টু ৯.১০ বা ৯.০৪ ব্যবহার করছেন তারা ইচ্ছা করলেই কয়েকটি কমান্ড লিখে ব্যবহার করতে পারেন উবুন্টু ১০.০৪ (ল্যুসিডের) থীম ও অাইকন। যা আপনার উবুন্টুর সৌদয্য আরো বাড়াবে। উবুন্টু ১০.০৪ এর গ্রাফিকে যে পরিবতর্ন আনা হয়েছে তাও উপভোগ করতে পারলেন। তাহলে দেখে নেওয়া যাক কিভাবে ডাউনলোড করবেন।

Applications > Accessories > Terminal খুলুন তার পর লিখুন কমান্ড গুলি :

প্রথমেই এই রেপুটি এড করে নেই , তারপর যে আপনি যে ভাসর্ন ব্যবহার করছেন তার কমান্ড লিখুন।

1 sudo apt-get update && sudo apt-get install gtk2-engines-murrine ubuntu-mono light-themes gtk2-engines-aurora

উবুন্টু ৯.১০ (কারমিক) :

1 sudo add-apt-repository ppa:nilarimogard/webupd8

উবুন্টু ৯.০৪ (জান্টি)

1 sudo bash -c "echo 'deb http://ppa.launchpad.net/nilarimogard/webupd8/ubuntu jaunty main' >> /etc/apt/sources.list"
1 sudo apt-key adv --keyserver keyserver.ubuntu.com --recv-keys 4C9D234C

পরিশেষে আবার এই কমান্ডটি লিখুন :

1 sudo apt-get update && sudo apt-get install gtk2-engines-murrine ubuntu-mono light-themes gtk2-engines-aurora

এখন System > Preferences > Appearance এ গিয়ে দেখুন উবুন্টু ১০.০৪ এর থীম Ambiance ও Radiance এড হয়ে গেছে।
পিসি রিস্টাট দিয়ে ব্যবহার করুন দারুন এই দুটি থীম।

আর এখান থেকে ডাউনলোড উবুন্টুর ১০.০৪ এর ডিফল্ড ওয়ালপেপারটি তাহলেই আপনার পিসিটি হয়ে গেল উবুন্টুর ১০.০৪ এর মতো।

উবুন্টু ১০.০৪ ডাউনলোডের পর কিছু করনীয়। ( পোষ্ট নতুনদের জন্য )

কয়েকদিন আগে রিলিজ পেয়েছে উবুন্টুর নতুন ভার্সন ১০.০৪ যাকে আমরা ল্যুসিড লিংক্স বলে জানি।

দিন দিন উবুন্টুর উন্নতি হচ্ছে সেই সাথে সাথে ব্যবহারকারী ও বেড়েছে, উবুন্টুর এ ভার্সনেও নতুন ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়বে আর বিশেষ করে বাংলাদেশীদের মাঝেও উবুন্টু ব্যবহারের ঝোক অনেক বেড়েছে।

এবার যারা ল্যুসিড লিংক্স সেটআপ দিলেন বা যারা সেটআপ দিতে ইচ্ছুক তাদের সাথে আমি একজন নতুন উবুন্টু ব্যবহারকারী হিসেবে কিছু বিষয় শেয়ার করতে চাই।

উবুন্টুতে বাংলা :

উবুন্টু ১০.০৪ তে বাংলা পড়তে হলে কোন সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে হয়না। তবে বাংলা লেখার জন্য কিছু করতে হয়। যারা অভ্র ব্যবহার করে বাংলা লিখেন তারা দেখুন এই লিংক টি। Avro Phonetic in Ubuntu Linux ‘Lucid Lynx’

আর যারা ইউনিজয় বা প্রভাত লেয়াউনটে লিখে থাকেন তারা System > Preferences > IBus Preferences >Input Methods

এ গিয়ে বাংলা ইউনিজয় ও প্রভাত লেয়াউট সিলেক্ট করে Ctrl + Space চাপুন আর বাংলা লিখুন ।

বাংলা লিখতে গিয়ে আমার মতো যারা বানান ভুল করেন যাদের জন্য রয়েছে ফায়ারফক্সের সাথে বাংলা বানান পরীক্ষক। এখান থেকে ডাউনলোড করে নিন আর নির্ভুল বাংলা লিখুন।

সফটওয়্যার ডাউনলোড :

ডাউনলোড করে নিন কয়েকটি প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার যা ডিফন্টভাবে উবন্টু ১০.০৪তে আসেনি।

নিচের সফটওয়্যার গুলি টারমিনাল থেকে সহজে ডাউনলোড করুন, যেমন লিখুন :

sudo apt-get install (সফটওয়্যারের নাম )
sudo apt-get install gimp

  • gimp (ডিজাইনের জন্য)
  • chromium (ক্রোম ওয়েব ব্রাউজার)
  • vlc (মিউজিক প্লেয়ার)
  • gnome-do (যেকোন সফটওয়ার খুজুন ও ওপেন করুন)
  • docky (ডক বার ম্যাকের মতো।)
  • wine (উন্ডজোর কিছু সফটওয়্যার ডাউনলোডের জন্য )
  • liferea (আর এস এস ফিডের জন্য)
  • scribus (ডেক্সটপ পাবলিশিং)
  • fatrat (ডাউনলোড ম্যানাজার )
  • emesene বা amsn ( উইন্ডোজ লাইফ ম্যসেনজারের আইডি দিয়ে চ্যাট করার জন্য )
  • padgin ( ইয়াহু বা গুগল টক ও অন্যন্যা আইডি দিয়ে চ্যাট করার জন্য । )
  • compizconfig-settings-manager (কমপিজ ফিউসন)
  • openoffice.org-pdfimport (পিডিওফ এডিটের জন্য )

আরেক দুটি বিশেষ সফটওয়্যারের কথা না বললেই নয়। তা হচ্ছে…

Ubuntu Tweak e Ailurus  এই সফটওয়্যর দুটি ব্যবহার করে উবন্টুকে সহজেই কন্টোল করা যায়।

টারমিনলে গিয়ে ডাউনলোড করুন

sudo add-apt-repository ppa:tualatrix/ppa
sudo add-apt-repository ppa:ailurus
sudo apt-get update
sudo apt-get install ubuntu-tweak ailurus

ডাউনলোডের পর উবুন্টু ISO পরীক্ষা করা

উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম ইন্টারনেট থেকে সরাসরি ডাউনলোড করা যায়। .iso ফরম্যাটের একটি ফাইল ডাউনলোড করে  সিডিতে বার্ণ করে অথবা ইউএসবি ড্রাইভ বুটেবল হিসাবে ফরম্যাট করে সেটি থেকে ইনস্টল করা যাবে। এছাড়া উবুন্টু ডেক্সটপ সংস্করণটি ইনস্টল ছাড়াও লাইভ সিডি/ইউএসবি হিসাবে ব্যবহার করা যায়। একটি অপারেটিং সিস্টেমের প্রতিটি অংশই গুরুত্বপূর্ণ তাই ডাউনলোডের সময় কোন ত্রুটি থাকলে পরবর্তীতে ইনস্টল অথবা ব্যবহারের সময় অসুবিধা হবে। তবে সঠিকভাবে সম্পূর্ণ অংশ ডাউনলোড করা হয়েছে কিনা সেটি পরীক্ষা করা যায়। উইন্ডোজ অথবা লিনক্স থেকে পরীক্ষা করার পদ্ধতিটি নিচে দেখানো হল।

লিনাক্স থেকে পরীক্ষা করা

টারমিনাল (Application >> Accessories >> Terminal) ওপেন করুন এবং সেখান থেকে উবুন্টু আইএসওটি রাখা হয়েছে এমন ফোল্ডারে যান। যেমন ফাইলটি যদি ডেক্সটপে রাখা থাকে তবে টারমিনাল ওপেন করার পর লিখুন

1 cd Des

এবার লিখুন নিচের কমান্ডটি

1 md5sum ubuntu-9.10-desktop-i386.iso

উবুন্টু ১০.০৪ ডেক্সটপ সংস্করণ ছাড়া অন্য কোনটি ডাউনলোড করলে ubuntu-10.04-desktop-i386.iso এর পরিবর্তে ঐ ফাইলটির নাম লিখতে হবে। কমান্ডটি ব্যবহার করার পর নিচের মত ফলাফল দেখা যাবে

1 d044a2a0c8103fc3e5b7e18b0f7de1c8 ubuntu-10.04-desktop-i386.iso

এবার https://help.ubuntu.com/community/UbuntuHashes থেকে নির্দিষ্ট সংস্করণের নম্বরের সাথে টারমিনালে দেখানো আপনার আইএসও এর হ্যাস নম্বরের সাথে মিলিয়ে নিন।

উইন্ডোজ থেকে পরীক্ষা

Cygwin (http://cygwin.com/) সফটওয়্যারটি ব্যবহার ইনস্টল এবং পদ্ধতি বেশ সহজ। এটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যায় এবং এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার পদ্ধতি লিনাক্সে md5sum পরীক্ষা করার মতই।

তবে কমান্ড ব্যবহার ছাড়াও উইন্ডোজের একটি গ্রাফিকাল টুল রয়েছে।

১. প্রথমে http://www.nullriver.com/index/products/winmd5sum ওয়েব সাইট থেকে winMD5Sum নামের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করতে হবে

২. এবার ডাউনলোড করা ISO ফাইলে মাউসের ডান বাটন ক্লিক করতে হবে

৩. মেনু থেকে Send To >> winMD5Sum অপশনটি ব্যবহার করতে হবে

৪. এরপর কিছুক্ষন অপেক্ষা করতে হবে। এই সময়টাতে winMD5Sum আপনার আইএসও এর জন্য একটি চেকসাম তৈরী করবে(কতক্ষন সময় অপেক্ষা করতে হবে এটি নির্ভর করবে ব্যবহারকারীর কম্পিউটারের গতির উপর)

৫. https://help.ubuntu.com/community/UbuntuHashes ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা উবুন্টু আইএসও এর md5 Hash নম্বরটি দেখে নিন এবং কপি করে সফটওয়্যারটির নির্ধারিত স্থান লিখুন

৬. Compare বাটনে ক্লিক করলে ফলাফল নতুন একটি উইন্ডোতে দেখানো হবে।

উবুন্টুতে কিভাবে ফোল্ডারের ব্যকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করবেন?

মার্চ 11, 2010 মন্তব্য দিন

উবুন্টুতে সাধারনত ফোল্ডার ব্যকগ্রাউন্ড সাদা থাকে, আর এই সাদা ব্যকগ্রাউন্ড যদি আপনার ভাল না লাগে তবে পরিবর্তন করে নিন অতি সহজে।
যেভাবে ব্যকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করবেন:

যে কোন একটি ফোল্ডার খুলুন তারপর Edit – Backgrounds and Emblems এখন দেখতে পাবেন নিচের চিত্রটি।

এখানে দেখতে পাবেন তিনটি অপশন, প্রথমটি হচ্ছে Patterns এখানে বিভিন্ন রকমের ব্রকগ্রাউন্ড পাবেন। সিলেক্ট করুন এর ড্রাগ করুন আপনার কাঙ্খিত ফোল্ডারে।

Colours অপশন ব্যবহার করে ব্যকগ্রাউন্ডের রং করতে পারবেন।

Emblems অপশন থেকে ফোল্ডারে বিভিন্ন রকমের চিহ্ন বসাতে পারবেন।